সাদা আর কালো (কবিতা)

“সাদা আর কালো ”
রমলা আর সমলা জমজ বোন।
একসাথে থাকে দুই
রমলা যে মোটা কালো
সমলা আবার ঘরের আলো ।
রমলার চাই ভাত ,আলু না হয় রুটি
সমলার চাই ফল সাথে ডিম দুটি ।

রমলার জ্বর ও কিছুনা
এমনিতেই হবে ভালো
সে তো সবার আছেই জানা।
সমলার জ্বর ও রে বাবা
ডাক্তার বদ্দি আর কবিরাজ ধর
মা ঘামে বাবা কাঁদে
সোনার রঙটা না যায় পুড়ে ।

দুই বোন কলেজেতে গেল ।
দিন যায় মাস যায়
মা, বাবা , দাদী সবাই চিন্তায় ।
রমলা আপদ বিদায় করো
সুযোগ এলো সম্বন্ধ পেলো ,
রমলার বিয়ে পাত্র কালো ।
সাথে বসন্তের দাগটা গভীর আরও
গঞ্জে একটা ফার্মেসী ও আছে ভালো
মা বাঁচল পরিবার বাঁচল
রমলার সত্যি গতি হইল।

সমলা সে যে ফসা ভারী
বিয়ে শাদী নয় তাড়াতাড়ি
কত্ত পাত্র কোটিপতি, বিদেশ ফেরত,
ব্যবসায়ী সাথে আছে আড়ত
অবশেষে এম বি বি এস ডাক্তার পাত্র,
বাবা মায়ের ছেলে একমাত্র ।
কত আয়োজন কত বাদ্য হইল
সারা এলাকার মানুষ জানল।

কমলার সংসারে অভাব অনটন
স্বামীর আয় রোজগার সব ঠনঠন
ভরা সংসার দেবর ননদ
কাজে কাজে শরীরের ব্যথা টনটন। ঢনঢন
বছর ঘুরতেই বাচ্চা হইল
রমলার কপালটা যে আরও পুড়িল
সারাদিন কাজ, বাচ্চার ঘ্যানঘ্যান
অনাহার আর রাত্রি জাগরণ
স্বামীর অত্যাচার বাইরে অনাচার
সব মিলিয়ে জীবন ছারখার ।

সমলার সোনার শরীর
দাসী বাদি সবই নাজির।
পায়ের উপর পা
হুকুমে তার সবই হাজির।

আহা রে কমলা !
দুঃখে দুঃখে জীবন যায়
বাইরে কালা ভিতরটাও অঙ্গার
এক টু ভালোবাসা না হয় দিত পরিবার।
হেসে খেলে আরেকটু যেত বেলা।
একটু সুযোগ……
পড়ালেখা
নিজের পায়ে দাঁড়াতে শেখা
হায় রে সমাজ !

সাদা কালোর এই যে বিভেদ
ভাংবে কবে যাবে তার রেষ
আর কত কমলা
অবহেলায় অনাদরে অভিমানে
গুমরে কাঁদবে জীবন যাবে।।

– হালিমা রিমা

Leave a Reply

Your email address will not be published.