বন্ধ হোক

Preview(opens in a new tab)

শ্লোগানমুখর রাজপথে আমার প্রতিবাদ শুনে
আপনি আমাকে থামতে বলেছিলেন মহামান্য।
আপনি বলেছিলেন ওতে আমার ক্ষতি হবে।
ওরা যে-কোনো সময় আমাকে ছিন্নভিন্ন করে দেবে!
আপনার কথায় যুক্তি আছে।
ওদের ক্ষমতা ওদের হাত থেকে ওদের লিঙ্গ অবধি!
ওরা চাইলেই পারে সব….
ওরা চাইলেই দাঁত দিয়ে কামড়ে দেয়,
ওরা চাইলেই ব্লেড দিয়ে কেটে দেয়,
ওরা চাইলেই নিরাপত্তা নেই ঘরে,
ওরা চাইলেই ক্ষমতার দম্ভে বিচার নড়বড়ে!
ওরা চেয়ে যায়, নিয়ে যায় বছরের পর বছর।
ওদের জাত নেই, ধর্ম নেই, নেই মায়ার আঁচর।
ওরা ভীতু, ওরা কাপুরুষ, ওরা নয় পুত্র ভাই বাপ।
কীসের পাপে রক্তাক্ত মোরা, আমার কীসের পাপ?
আমি কন্যা, জায়া, জননী
আমার জঠরে ওঠে বেড়ে কেমন ক্ষমতা,
কেমন শক্তিতে আমায় আঘাত করে?
যখন পুজা জর্জরিত হয় ব্লেডের ছোবল দিয়ে
আমার জরায়ুও ছিঁড়ে তখন সকল ধরা নিয়ে!
যখন তনুর স্বপ্ন ভাঙে একটি নারীর শরীর শুধু বলে
তখন আমার মাতৃদুগ্ধ হাহাকারের জোয়ার তোলে!
যখন গভীর রাতে বাসে লুণ্ঠিত হয় ঘুমন্ত রুপার মূর্তি
ঘুম কি আসে চোখে আমার ভেবে শয়তানের কুকীর্তি?
আমায় আপনি বেঁধে রাখুন, করুন সিন্ধুকে তালাবদ্ধ,
একবার শুধু কথা দিন আমায় তবেই কি নারী অবমুক্ত?
নারীর মুক্তি দেহ তত্ত্বে নয়, মুক্তি তোমার মস্তিষ্কে
মহামান্য কামিনীকে নয় আটকাও তোমার জাতি ভাইকে।
আমিও মানুষ আমারও আছে বাঁচবার অধিকার,
ছি ছি ছি লজ্জা তোমায় তুমি বুঝবে কবে আর?
মহামান্য ছিঁড়ে ফেলুন হেচকা টানে তবে মোদের জরায়ু
বন্ধ হোক মানব জন্ম, রুদ্ধ হোক সব ভালোবাসার বায়ু!

-আমিনা সুলতানা সানজানা

Leave a Reply

Your email address will not be published.